1. jashimuddinmatrijagat@gmail.com : Jashim Uddin : Jashim Uddin
  2. sohaghsandwipi@gmail.com : Khan Salim : Khan Salim
  3. h.lokmanhossen@gmail.com : Lokman Hossen : Lokman Hossen
  4. khansalimrahman@gmail.com : matrijagat : Daly matrijagat
  5. banglahost.net@gmail.com : rahad :
  6. dailyishwardinews@gmail.com : রাসেল (ঈশ্বরদী) প্রতিনিধিঃ : রাসেল (ঈশ্বরদী) প্রতিনিধিঃ
  7. shohaghsandwipi@gmail.com : Shohagh Sandwipi : Shohagh Sandwipi
  8. diskoad@gmail.it : Kent Waper : Kent Waper
স্বপ্নের মুনতাহা,গল্পকারঃ শাহাদাত শিকদার চরিত্রঃ মুনতাহা,রিষাদ - দৈনিক মাতৃজগত
নোটিশ:
বহুল জনপ্রিয় জাতীয় দৈনিক মাতৃজগত পত্রিকা ও জনপ্রিয় আইপি টেলিভিশন মাতৃজগত টিভিতে সংবাদকর্মী নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। সারা বাংলাদেশে বিভিন্ন জেলায়, উপজেলায়, জেলা ব্যুরো প্রধান ও বিভাগীয় ব্যুরো প্রধানে কাজ আগ্রহী প্রার্থীগণ সিভি পাঠাতে পারেন। ইমেইল: doynikmatrijagat@gmail.com যোগাযোগ নাম্বার: 01712-608880, 01613-060606
শিরোনাম :
নবাবগঞ্জে আগুন লেগে নিঃস হলেন মরহুম দুলালের স্ত্রী মিরপুর মডেল থানায় ভূয়া ডিসি গ্রেফতার সাতক্ষীরা পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র ৫ ও কাউন্সিলর পদে ৭০ জনের মনোনয়ন জমা সিরাজগঞ্জে উল্লাপাড়ায় প্রাইভেটকারের চাপায় নিহত ১ সুন্দরগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে জাতীয় পার্টি প্রার্থী আব্দুর রশিদ সরকার ডাবলুর বিজয়ী সুনামগঞ্জে আবারও মেয়র নির্বাচিত নাদের বখত। স্টাফ রিপোর্টার তামিম হাসান রাজবাড়ী পৌরসভার নির্বাচনে বিএনপির মনোনয়নপত্র পেলেন সাবেক মেয়র তোফাজ্জেল মিয়া মির্জাগঞ্জে বিষপানে একজনের আত্মহত্যা চিতলমারী শেরেবাংলা ডিগ্রী কলেজের ছাত্রদলের সদ্য আহবায়ক কমিটির সদস্য সচিব এর নামে অপপ্রচারের প্রতিবাদ। ভূমিহীনদের জন্য বরাদ্দকৃত ঘর নিয়ে অনিয়মের প্রতিবাদে মানব বন্ধন জামালপুরের মেলান্দহে দুই শতাধিক কর্মীর জাতীয় পার্টিতে যোগদান শাহজাদপুরে ডায়া নতুন পাড়া দুই মেয়েকে বিষ পান করিয়ে মায়ের আত্মহত্যা সিরাজগঞ্জে সলঙ্গায় কোর্টের নিষেদাজ্ঞা অমান্য করে জমি দখলের চেষ্টার অভিযোগ বিনা চিকিৎসায় মালয়েশিয়া থেকে লাশ হয়ে ফিরলো সাইদুল উল্লাপাড়ায় পৌর নির্বাচনে মেয়র বিজয়ী এস এম নজরুল ইসলাম পিতার হাতে সন্তান খুন,আসামি গ্রেফতার। বেলকুচি পৌর নির্বাচনে নৌকাকে হারিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী নারিকেল গাছের জয় মোড়েলগঞ্জ জিউধারায় বঙ্গবন্ধুর পুরানো বাড়ির নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করলেন, অ্যাডভোকেট আমিরুল আলম মিলন বরগুনার আমতলী থানা হতে ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী র‌্যাব-৮, কর্তৃক গ্রেফতার। পটুয়াখালীর কলাপাড়া থানা হতে ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী র‌্যাব-৮,কর্তৃক গ্রেফতার সাতক্ষীরায় বীর মুক্তিযোদ্ধা মুনসুর আহমেদের রোগমুক্তি কামনায় বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদের দোয়া অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত আজ ধানের শীষের এজেন্ট কোথাও দেখা যায়নি : ইসি মাহবুব লালমোহনে দু‘পক্ষের সংঘর্ষে ইউসুফ আলী নামে একজন নিহত মির্জাগঞ্জে সেতু ধসে মাদ্রাসা সুপার নিহত কলাপাড়ার ধুলাসারে ভূমিহীন আজাহার হাওলাদার পেল না সরকারি ঘর কুয়াকাটায় আবাসিক হোটেলে গণধর্ষণ, ধর্ষক সহ আটক ৩ সিরাজগঞ্জে অবৈধ ইট ভাটা উচ্ছেদ মেয়র পদপ্রার্থী সৈয়দ আব্দুর রউফ মুক্তার নির্বাচনী মতবিনিময় সভা সিরাজগঞ্জের সলঙ্গায় বিপুল পরিমান গাঁজা সহ ১ মাদক ব্যবসায়ী আটক সুন্দরগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে নৌকার প্রচারণায়—মোঃ সাজেদুল ইসলাম শিবচরে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের অধীন ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচির পরীক্ষার তারিখ ঘোষনা সিরাজগঞ্জের সলঙ্গায় ভাইয়ের বিরুদ্ধে নিজ বোনকে মারপিটের অভিযোগ নেত্রকোনায় যাত্রীবাহী বাসের সামনের চাকা ফুটো হয়ে উল্টে গিয়ে পুকুরে পড়ে ২০ যাত্রী আহত হয়েছে শ্রীপুরে ট্রাক চাপায় নিহত -১ রাজবাড়ী সদর উপজেলার খোলাবাড়ীয়া গ্রামে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ। কলারোয়া পৌরসভা নির্বাচন-২০২১ ৫-মেয়র ও ৫২-কাউন্সিলরের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ বাগেরহাট চিতলমারী বড়বাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মাসুদ সরদারের বিরুদ্ধে ধর্ষণচেষ্টার মামলা উল্লাপাড়ায় পুলিশের হাতে চার ছিনতাইকারী গ্রেফতার মুন্সিগঞ্জের ঢাকা-চট্রগাম মহাসড়কে দুর্ঘটনায় নিহত-১ রাজশাহীতে ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরে ৩ টি প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা যুক্তরাষ্ট্রে ৩ জনকে গুলি করে হত্যা, হত্যাকারী নিহত শিশুরা সবকিছু হতে চাইলেও কেউ সাংবাদিক হতে চায়না কুড়িগ্রামে একটি সমাধি খননের প্রথম জাতীয় অকল্পিত ঘটনা মেরুদণ্ডে পাএ রেখে জীবিকার তাগিদে আঃ মন্নান গাজী যখন কানের ভেতরে চুলকায় তখন অস্বভাবিক আচরণ করেন শাহ’জালাল যখন কানের ভেতরে চুলকায় তখন অস্বভাবিক আচরণ করেন শাহ’জালাল মহিপুরে গাঁজাসহ আটক ১জন সাতক্ষীরা- খুলনা মহাসড়ক শাকদাহে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত ২ আহত ১০ জন পঞ্চগড়ের সদর উপজেলায় গলাকাটা আহত অবস্থায় এক যুবক উদ্ধার জাতির পিতার স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের মধ্য দিয়ে স্বাধীনতাযুদ্ধের বিজয়ের পূর্ণতা পরিপূর্ণ হয়- এমপি শাওন সাঘাটায় জলাবদ্ধতা দূরকরণের দাবীতে মানববন্ধন সদা হাস্যজ্জল সাংবাদিক হুমায়ুন কবির সুস্থ্য হয়ে ফিরে আসবেন আমাদের মাঝে মহিপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা জাহিদ খান সভাপতি, রুবেল হাওলাদার সাধারণ সম্পাদক বগুড়া কাহালুর তিনদীঘিতে আওয়ামী লীগের প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত শাহজাদপুর ফুটপাতের হকারদের করুন অবস্হা। ভোটার টানতে উপঢৌকন বিট পুলিশিং কার্যক্রম” বরগুনার পুলিশ সুপার জাহাঙ্গির মল্লিক এর আরোও গতিশীল করার উদ্দ্যোগ  মির্জাগঞ্জে ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার বগুড়ার শেরপুরে আওয়ামীলীগের নির্বাচনী প্রচার অফিসে অগ্নিসংযোগ মদপানে সোনারগাঁও উপজেলার ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বাবু সহ ৫জনের মৃত্যু, আশঙ্কাজনক -২ বগুড়ায় ডিবি পুলিশের অভিযানে ইয়াবাসহ ১ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার! মজিদুল সারপুকুর ইউনিয়ন জনগণের সেবা করতে চায় আদমজী ইপিজেডের সামনে শ্রমিকদের অবস্থান, যানচলাচল বন্ধ মুন্সীগঞ্জে ছোট বোনকে ধর্ষণ চেষ্টা; পুরুষাঙ্গ কেটে মৃত্যু নিশ্চিত করেছে মা-বাবা ও বোন। বগুড়ায় কিশোরীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে তরুণীসহ তিনজন আটক অনলাইন ক্লাসে ভালো ফলাফলের কৌশল অবলম্বন রাজশাহীতে দুর্ঘটনার কবলে প্রশিক্ষণ বিমান সাতক্ষীরা পৌরসভার কাটিয়া যুব সংঘের উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ ছয়জনের মৃত্যু, মালয়েশিয়ায় বন্যায় সরিয়ে নেওয়া হলো অর্ধলক্ষ মানুষ বরগুনায় দুর্বৃত্তের আগুনে পুড়লো ফারুক আলমের বসতঘর মুজিব জন্ম শতবর্ষ উপলক্ষে কলাপাড়ায় প্রথম বিভাগ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্বোধন সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা ব্লাড সোসাইটি হবিগঞ্জ প্রতিষ্ঠা বার্ষিক উপলক্ষে মিলন মেলা সম্পূর্ণ দালাল চক্রের দৌরাত্ম্যে নেছারাবাদ উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স ছয় নারী দালালকে ৯০হাজার টাকা জরিমানা মাইটিভির জামালপুর জেলা প্রতিনিধিকে প্রাণনাশের হুমকি সাভারে নারী শ্রমিককে গণধর্ষণে গ্রেপ্তার -৪ নরসিংদী জেলা ডিবি পুলিশের অভিযানে ইয়াবাসহ একাধিক মাদক মামলার আসামি গ্রেফতার ৪ মির্জাগঞ্জে ছাত্রলীগের ৭৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে হাজার মানুষের ঢল বগুড়ায় প্রতিবন্ধী নারীকে ধর্ষণ ঘরজামাই গ্রেফতার গজারিয়ায় হোসেন্দী বাজার সংলগ্ন ডুবা থেকে”১৮ দিন পর, হাসান নামে তরুনের মরদেহ উদ্ধার বাগেরহাট ২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ সারহান নাসের তন্ময়ের চিতলমারীতে নেতাকর্মী ও প্রশাসনের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদ এর ১৮ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে সুন্দরবন ভ্রমণ সাংবাদিকদের দাবি, মর্যাদা ও অধিকার রক্ষায় আমৃত্যু কাজ করতে চাই। পাইকপাড়া যুব একতা পরিষদ এর পক্ষ থেকে বিনামূল্যে মাদ্রাসায় গাছের চারা বিতরণ পল্লবী থানার এসআই আরিফ হোসেন কে চাকুরী থেকে বরখাস্ত করায় ডোপ টেষ্ট নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি ডালবুগঞ্জ ইউপি মেম্বার জুয়েলের বিরুদ্ধে ত্রাণ বিতরণে ফের অনিয়মের অভিযোগ সৎ শিক্ষিত অধ্যক্ষ দেলোয়ার শিকদার কে চেয়ারম্যান হিসেবে পেতে চায় ডালবুগঞ্জ বাসী কলাপাড়ায় আম্পানে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে গুড নেইবারস্ বাংলাদেশ’র ত্রাণ বিতরণ কুমিল্লায় তর-তাজা গাঁজার গাছ উদ্ধার কেটে বিক্রি করত খোকন পাথরঘাটায় বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তৃতীয় শ্রেণীর কর্মচারীদের স্মারকলিপি প্রদান। ভোলার বোরহানউদ্দিনে খালে ভাসমান বৃদ্ধার লাশ উদ্ধার শাহজাদপুরে গালা ইউনিয়নের এলাকাবাসী নিজেরা পরিশ্রম করে ২ কিঃ মিঃ সড়ক তৈরী করছে র‍্যাব সেবা সপ্তাহ উদ্যাপন উপলক্ষে র‍্যাব- ৮, বরিশাল কর্তৃক রক্তদান কর্মসূচী পালন সরকার শিক্ষার উন্নয়নে ব্যাপক উন্নয়ন করেছে – উপাধ্যক্ষ ড. মো. আব্দুস শহীদ এমপি। মাগুরার সোনালী বেগম জন্মদিলেন দুই মাথাওয়ালা কন্যাসন্তান কমলগঞ্জে ভোটের উত্তাপে নির্বাক পৌরসভার সাধারন ভোটার বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহীম ভর্তি চলছে ভর্তি চলছে ভর্তি চলছে লালমোহনে হাইকোর্টের আদেশ অমান্য করে সাংবাদিকের জমি জবরদখল করোনার দ্বিতীয় ঢেউ রোধে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসনের অভিযানে ৬ লক্ষ ৬৫ হাজার টাকা জরিমানা আদায় সাভারে ছিনতাই করে পালানোর সময় দুই ছিনতাইকারী আটক কলারোয়া থানা পুলিশের অভিযানে ৫১ বোতল ফেনসিডিলসহ গ্রেফতার-১ সেতুতে আরোপিত টোল বন্ধের দাবিতে ঘন্টাব্যাপি বিশাল মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ বিএসএএফ’র মানবন্ধনে নেতৃবৃন্দ ; সকল ধর্মের মানুষের রক্তের স্রোতধারায় অর্জিত সেতুতে আরোপিত টোল বন্ধের দাবিতে ঘন্টাব্যাপি বিশাল মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ পটুয়াখালীর কলাপাড়া থানা হতে ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী র‍্যাবের হাতে গ্রেফতার। কুয়াকাটা সৈকতে বেড়াতে এসে পরিবেশ সাংবাদিকদের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ দেড় যুগ পর শিকলমুক্ত হলো দুই বোন পাপড়ি ও অনন্যা সুনামগঞ্জে নানা কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত। সাতক্ষীরায় বদলি জনিত ২ উপজেলা নির্বাহী অফিসার এর বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত মির্জাগঞ্জে ছাত্রলীগের ৭৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন সাভারে ভুয়া চাকুরির প্রলোভনে ৪ প্রতারক গ্রেপ্তার সাতক্ষীরায় ছাত্র লীগের ৭৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত জামালপুরে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত মহিপুরে যথাযোগ্য মর্যাদায় ছাত্রলীগের ৭৩ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত কালকিনিতে ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর র‍্যালী পুলিশি বাধায় পন্ড গ্রেফতার-১ ছাত্রলীগের কমিটিতে কোন মাদক ব্যবসায়ী আসার সু্যোগ নাই ছাত্রলীগের ৭৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে এ্যাড আজমত উল্লাহ খান চিতলমারীতে নানা আয়োজনে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭৩তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত হাতীবান্ধায় ট্রাক দুর্ঘটনায় দুই পুলিশ ডিএসবি নিহত The Way to Search For Mispronounced Words in Paper-writing Rewiews Writing Custom Research Papers

স্বপ্নের মুনতাহা,গল্পকারঃ শাহাদাত শিকদার চরিত্রঃ মুনতাহা,রিষাদ

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৮ জুলাই, ২০২০
  • ৩৮৪ বার

সময়টা ১৯৮০ সালের দিকে…
তখনও আধুনিকতা স্পর্শ করে নি। না ছিল ওয়াটসঅ্যাপ,না ছিল ফেসবুক, না ছিল কোন প্রকার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। যোগাযোগের ক্ষেত্রে চিঠি-ই ছিল জনপ্রিয়। খুব কম সংখ্যকদের কাছেই ছিল ল্যান্ডফোন!
— সেই ব্যাকডেটেড যুগের বেড়ে ওঠা এক তরুন ছিলাম আমি রিশাদ। সেসময় এক পত্রিকায় কিশোর সংকলন এ ক্ষুদে গল্প লিখতাম! লেখা প্রায় ছাপা হত। তাই নিয়মিতই পাঠাতাম….
— একদিন এক চিঠি পেলাম। দেখলাম চিঠি নওগাঁ থেকে এসেছে। অবাক হলাম,নওগাঁ থেকে তো চিঠি আসার কথা না,কারণ কেউ ছিল না আমার পরিচিত সেখানে…
খানিকটা উৎসাহ নিয়ে চিঠিটা খুললাম…..
শ্রদ্ধেয় লেখক,আশা করি ভাল আছেন। আমি মুনতাহা। আপনার গল্প আমার বেশ ভালো লাগে।ঠিকানা কই পেলাম অবাক হচ্ছেন নিশ্চই। একটা কাজে ঢাকা গিয়েছিলাম,সেখানে পত্রিকা অফিস থেকে অনেক কষ্টে কালেক্ট করেছি। তাই চিঠি লিখা আরকি। আশা করি আমার বন্ধু হবেন।
আপনার ছোট খাটো ফ্যান
“মুনতাহা”
চিঠি টা দেখে ভ্যাবাচ্যাকা খেলাম। কারণ কেউ কখনো এভাবে চিঠি লিখেনি,তাও আবার একটা মেয়ে!
চিঠিটার ইতিবাচক উত্তর দিলাম। বন্ধুত্ব হল। কথা হত চিঠিতেই। সব অভিমান, রাগ, দুষ্টুমির বাহক ছিল চিঠি। মুনতাহা পড়ত ক্লাস ১০ এ আর আমি ছিলাম ইন্টারমিডিয়েট পরীক্ষার্থী।
চট্রগ্রাম থেকে নওগাঁর দূরত্ব অনেক হলেও আমাদের বন্ধুত্ব-এর মাঝে দূরত্ব ছিল না। খুব কাছাকাছি ছিলাম দূরে থেকেও।

চিঠি আসত ৩ দিন পর অথবা ৭ দিন পর। কখনো কখনো ১৫ দিনের ও বেশি লেগে যেত। দিনগুলোতে অপেক্ষার প্রহর গুনতাম। মিস করতাম খুব। চিঠি যখন আসতে দেরি করত তখন খুব কষ্ট হত। দরজায় কারো সাড়া পেলেই ছুটে দেখতাম চিঠি এসেছে কিনা।
মুনতাহা ও বোধ হয় নিজের অগোছালো চুলগুলোকে পরোয়া না করে ছুটে যেত দরজায় দেখার জন্য যে ডাকপিয়ন চিঠি এনেছে কি! হয়ত সেও ব্যাকুল ছিল আমার পত্রের অভিপ্রায়ে!
আমরা একে অপরকে ভালোবেসে ফেলি। শুধু চিঠি আদান প্রদান করেই। তবে নিজের মনের মধ্যে অবয়ব সৃষ্টি করে চিন্তা করতাম, সে কেমন হবে দেখতে। হবে আমার রূপপরী, হবে সে অপরূপা!
–একদিন চিঠিতে তার একটি ছবি দেওয়ার জন্য অনুরোধ করি। সে নিজের একটা সাদা-কালো ছবি দেয়। সে ছবি দেখে আমি আবারো প্রেমে পড়েছিলাম। যখন চিঠি আসত না,তখন সেই ছবি দেখেই মুনতাহার অনুপস্থিতি ঘুচতাম। মনে হত সে এই ছবির মধ্যদিয়ে কথা বলছে। এমন লাগত যেন ছবিটি বলছে-” রিশাধ চিন্তা কেন কর? আমি তো আছিই তোমার পাশে।”
ভাবতাম উত্তরে পাঠানো আমার ছবিটা দেখেও সে একইভাবে অনুপস্থিতিকে ক্ষলন করে। কেউ আসলে হয়ত বালিশের নিচে তা লুকিয়ে ফেলে। যখন চিঠি আসে না,তখন হয়ত মুনতাহা আমার ছবির দিকে তাকিয়েই চোখের কোনে শিশির বিন্দু জমা করে আর প্রতিক্ষার প্রহর গুনে…
— একবার আমার টাইফয়েড হয়েছিল। তাকে চিঠিতে অতি ব্যঙসূরে লিখেছিলাম..”আমি অনেক অসুস্থ, আমার বাচার সম্ভাবনা নেই,দোয়া কোরো।
উত্তরে যা পেলাম তা কখনো কল্পনা করি নি…
মুনতাহা- দয়া করে এমন মজা কোরো না। আমি নিজেই মৃত্যু পথযাত্রী। আমার নিজেকে অপয়া মনে হচ্ছিল। আমার মনে হচ্ছিল আমি বাচবা না বলে আমার প্রিয় মানুষও বাচবে না কেন?
তুমি অনেক অভিঘানিত হয়েছ জানি। কিন্ত সত্যিটা তোমার জানতেই হত একদিন। আমি টিবি-আই এর থার্ড স্টেজে আছি। ডাক্তার আমার বেচে থাকাকে মিরাকেল মনে করেন। তারা ৩ বছর সময় দিয়েছিলেন এখন ২.৫ বছর শেষ। এর মধ্যে কোনো একটা সময়ে কিছু একটা হয়ে যেতে পারে। মনে হয় আমাদের আর দেখা হবে না। আর হ্যা তুমি আমার জন্য চিন্তা করবে না একদম। যখন আমার সময় হয়ে আসবে, তখন একটা অবয়ব হয়ে আসব তোমার কাছে। তোমার হাতটা ধরে বলব “চলে যাচ্ছি আজ রিশাধ,ওপারে দেখা হবে”

চিঠিটা পড়ে আমার শরীর কেমন ঠান্ডা হয়ে আসল। আমি মেঝেতে বসে পড়লাম। মাথায় সবকিছু কেমনটা জট বেধে আসছিল। দেরি না করে চিঠি লিখা শুরু করলাম…..
— আরে পাগলী মৃত্যু পথযাত্রী কেন বলো নিজেকে? একটা শিশু যখন জন্ম নেয়,তখন থেকেই সে মৃত্যু পথযাত্রী হয়ে যায়। আমরাও বেচে আছি মিরাকেলের জোরে। কাল কে বেচে থাকবে সেটার নিশ্চয়তা কারো কাছে নেই। আর কেন বললে দেখা হবে না? অবশ্যই হবে। আমি আসব নওগাঁ ২ মাস পর, শুধু একটাবার পরীক্ষা শেষ হয়ে যাক। একটু কষ্ট করে অপেক্ষা করো..
ইতি তোমার
“রিশাধ”
উত্তরে সে চিঠিতে ঠিকানা পাঠায়। আর লিখা দেখে বুঝা যাচ্ছিল অনেক খুশি হয়েছে সে। পরীক্ষা শেষ হলো। আমি যাওয়ার প্রস্তুতি নিলাম। ১৮-২০ ঘন্টার পথ পেরিয়ে পৌছালাম নওগাঁয়। ঠিকানা মত গেলাম। চিঠিতে মুনতাহা বলেছিল সামনে দিয়ে না এসে পিছন দিয়ে আসতে।
তাই যেমন কথা তেমন কাজ। বাড়ির পিছনের দেয়াল বেয়ে উঠে ঝোপে গিয়ে লুকালাম।
বারান্দা খোলা। নিশ্চই মুনতাহা ভিতরে আছে। ডাক দিব কিভাবে ভেবে পাচ্ছিলাম না। হঠাত আসা বুদ্ধিকে কাজে লাগিয়ে বারান্দায় নুড়ি মারা শুরু করলাম।
নীল কামিজ আর খোলা চুলে এক রমনী বেরিয়ে এসে এদিক ওদিক বিরক্তির দৃষ্টিতে তাকাতে থাকে। আর ঝোপে লুকিয়ে থাকা রিশাধটা আবারো প্রেমে পড়ে যায়।
আমাকে ঝোপে লুকিয়ে থাকা দেখে এক গাল হেসে নিল সে। ইশারা করে আর পিছনদিকের বাগানটায় নেমে আসে। আমরা মুখোমুখি হই। দু জনেই ছিলাম বাকরুদ্ধ। নানা রকম জড়তার কারনে পারছিলাম না দুজন-দুজনকে জড়িয়ে ধরতে..
নিরবতা টা আমি ভাঙলাম…
-ভা..ভা..ভালো আছ?
– (ইতিবাচক উত্তর দিয়ে মাথা ঝাকাল)
– তো বাড়িতে কি কেউ নেই?
– না আছে,সবাই ঘুমুচ্ছে
– তো তুমি ঘুমোও নি?
– না কিভাবে ঘুমাব? তুমি আসবে বলেছিলে না? (লাজুকলতার মত করে)
– উত্তর দিতে না পেরে আমি শুধু হেসেছিলাম…
– তুমি অপেক্ষা কর,আমি তৈরি হয়ে আসছি…
-(মাথা ঝাকালাম)
— সে ভিতরে চলে গেল। ভাবলাম এতটা কিভাবে ভালোবাসতে পারে কেউ? যাহোক মাথাটা অনেক ধরেছে। অনেকটুকু পথ ভ্রমন করেছি।সকাল ৬ টা বাজে,ক্ষিধেও লেগেছে প্রচুর…
– কি মশাই ক্ষিধে লেগেছে খুব?
– (মুনতাহার কথায় ঘোর কাটল) হ্যা মানে না,না লাগে নি।
– হুহ! মিথ্যে কেন বল? তোমার জন্য নিজ হাতে নাস্তা বানিয়ে রেখেছিলাম। কখন আসবে না আসবে,ঠান্ডা হয়ে গিয়েছিল। গরম করে এনেছি। খেয়ে নাও…
– আমি শুধু তার দিকে আমি শুধু তার দিকে তাকিয়েছিলাম
– কি ব্যাপার? খাও না..
– হ্যা হ্যা, খাচ্ছি।
( আমার রাক্ষুসে ভক্ষন দেখে সে হাসতে হাসতে বলে) আমরা এখন কুঠিবাড়ি যাব,এরপর একটা পার্কে, সেখান থেকে একটু দূরে একটা গ্রাম আছে। সেখানকার একটা খাল খুব সুন্দর। ডিঙি নোউকায় আমরা খালটাতে চড়ে বেড়াব, দুপুরের খাবার টা নোউকাতেই খাব! খাবার সাথে নিয়ে এসেছি! মজা হবে তাই না?

তুমি এত কিছু প্ল্যান করে ফেললা!! ( গিলতে গিলতে)
– জী। শেষ বারের মত দেখা হচ্ছে, তাও আমি আশা ছেড়ে দিয়েছিলাম। এখন যেহেতু তুমি সামনে। এটাই সবচেয়ে শ্রেষ্ঠ দিন হতে যাচ্ছে আমার জন্য।
– এমন করে কেন বল? ধ্যাত!
– হয়েছে মুখ কালো করতে হবে না! তাড়াতাড়ি খেয়ে নাও বের হতে হবে।
– হুম,খাচ্ছি তো!
— পুরো দিন একসাথে কাটালাম। আমারো সবচাইতে সুন্দরতম দিন ছিল সেটি। ফিরে আসতে একদমই ইচ্ছা করছিল না আমার।
– বাস ছেড়ে দিবে কিছুক্ষন পর, আমার না চট্রগ্রাম ফিরে যেতে একেবারেই ইচ্ছা করছে না। (আমি)
– গাধা! যেতে তো হবেই। আর মনে হয় না দেখা হবে। মৃত্যুর খবর টা পেলে একবার কবরটা যিয়ারত করতে এস কিন্তু…
– (আমি কেঁদে তাকে জড়িয়ে ধরলাম) একদম বাজে কথা বলবে না। তোমার সাথে আবারো দেখা হবে। পরের বার এসে তোমাকে চট্রগ্রাম নিয়ে যাব!
– উহু! মেয়েদের মত কান্না কেন করছ?
– করব কান্না! সমস্যা আছে কোনো তোমার? বাচবে তুমি দেখে নিও! প্রত্যেক দিন নামাজ পড়ে আমি দোয়া করব তোমার জন্য,আমার কথা আল্লাহতালা ঠিকই শুনবে দেখে নিও।
– হা বাবা,বাচব আমি। যতদিন তুমি পাশে আছ আমার ততদিন কিছু হবে না। বাস ছেড়ে দিচ্ছে। যাও!…আরে যাও না!
যাওয়ার সময় মুনতাহা একটুও কান্না করে নি। কারন সে জানত, নিজেই আবেগপ্রবণ হলে আমাকে সামলাতে পারবে না।
— চট্রগ্রাম এসে দু-তিন বার চিঠি আদান-প্রদান হয়। কিন্তু হঠাত করে চিঠি আর আসলো না। ১০ টি চিঠি পাঠিয়েছিলাম। ৪ মাসে একটির ও উত্তর আসে নি। নানা রকম বাজে চিন্তা মাথার ভিতর ঘুরপাক খাচ্ছিল। পরক্ষনে ভাবলাম, না মুনতাহা পারবে মিরাকেল কে রিয়েলিটিতে নিতে। কিছু হবে না ওর।
একটা ভার্সিটিতে এডমিশন নিয়ে ৪ মাস পর
আবারো পাড়ি জমালাম ৫১০ কি:মি: দূরের সেই নওগাঁয়।
পিছন দিয়ে আবারো দেয়াল বেয়ে উঠলাম। বারান্দা বন্ধ ছিল। অনেক নুড়ি পাথর ছুড়লাম। কেউই বেরিয়ে এল না। নিরূপায় হয়ে হয়ে বাড়ির সামনের দিকে এগুতে দেখলাম…
পিছন দিক থেকে একটা মেয়ে গেটের লেটার বক্সের তালা খুলে একগাদা চিঠি বের করছে আর বেছে বেছে দেখছে…
-এক্সকিউজমি, এটা মুনতাহার বাসা না? তারা কি বাড়িতে নেই? কিছু জানেন? (আমি)
– মেয়েটা হঠাত থমকে দাঁড়াল, কোনো উত্তর দিচ্ছিল না।
– কি ব্যাপার, কথা বলছেন না কেন?
— মেয়েটি ঘুরে তাকায়, সেই দৃশ্য টা ছিল আমার জীবনের সেরা দৃশ্য। মেয়েটা আর কেউই না, মেয়েটি ছিল আমার মুনতাহা। ঘুরে তাকাতেই তার হাতের থাকা চিঠি গুলো নিচে পড়ে যায়। মুনতাহা দৌড়ে এসে আমাকে জড়িয়ে ধরে…
– কই ছিলে তুমি মুনতাহা? ৪ টা মাস তোমার একটা চিঠির জন্য অপেক্ষা করেছি।
– আমাকে ক্ষমা কোরো রিশাধ। আমি ভারতে গিয়েছিলাম চিকিৎসার জন্য.. রিশাধ আমি পেরেছি। পেরেছি মিরাকেলকে বাস্তবে রূপ দিতে।
– আমি নিজেকে ছাড়িয়ে নিয়ে তার দিকে তাকালাম। সে কাঁদছে..আমিও অশ্রু ধরে রাখতে পারি নি। কাঁদতে কাঁদতে আবারো তাকে জড়িয়ে ধরলাম!
— অন্য সব গল্পের মত আমাদের গল্পটাও হতে পারত। আমি নওগাঁ এসে কারো কাছ থেকে সুনতে পারতাম মুনতাহা আর নেই,কেউ আমাকে কবর পর্যন্ত নিয়ে যেত। কিন্তু না আমাদের গল্প টা ব্যাতিক্রম…আমার মুনতাহা পেরেছে,আল্লাহপাক শুনেছিলেন আমার কথা।
মুনতাহা পেরেছে দৃড়তা দিয়ে অলৌকিককে বাস্তবে রূপান্তর করতে, সে পেরেছে নিশ্চিত মৃত্যু থেকে নিজেকে বের করে নিতে, সে পেরেছে বেচে থাকার সপ্ন কে সত্যি করতে। হ্যা আমার মুনতাহা পেরেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
অনুমতি ছাড়া লেখা ও ছবি অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By matrijagat.com